শিরোনাম
গ্রেফতার বন্ধ না করলে পরিস্থিতি ভয়াবহ হবে: ঐক্যফ্রন্টপর্ব-২ ছদ্মবেশী অনুসন্ধান।। মহাসড়কে টাকার ছড়াছড়ি! (ভিডিও)চকরিয়ায় বিএনপির প্রার্থীর গাড়ি বহরে হামলা সাংবাদিকসহ আহত ২০রাজনীতিতেও দেশপ্রেমের নজির স্থাপন করতে চান মাশরাফি‘গৌরবময় স্বাধীনতা’ ব্যতিক্রমী কাজের মাধ্যমে প্রশংসায় ভাসছেন এসপি শাহ মিজানব্যারিস্টার মাহাবুব উদ্দিন খোকন গুলিবিদ্ধ, থমথমে নোয়াখালীআওয়ামী লীগের ইশতেহার ঘোষণা ১৮ ডিসেম্বরআমজাদ হোসেনের সম্মানে তিন দিন শুটিং বন্ধকুয়েতে আকামা বদলের নতুন নিয়ম চালু হচ্ছেউলিপুর আ.লীগ সভাপতি শিউলি বহিষ্কারবিজয়ের সাজে সজ্জিত ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়মেঘালয়ে ‘ইঁদুরের গর্তে’ নিখোঁজ ১৩ গ্রামবাসীকাশ্মিরে সংঘর্ষ গুলি, নিহত ১১দিনাজপুরে পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যুনারীদের অবদানে রাজশাহী আরও এগিয়ে যাবে : মেয়র লিটনরাজধানীর পুরান ঢাকায় বাসা থেকে গ্রেনেড উদ্ধারভোটকক্ষ থেকে সরাসরি সম্প্রচার করা যাবে না: সিইসিশিবগঞ্জে সাবেক পৌর কাউন্সিলরসহ গ্রেফতার ৩ইবিতে শীতকালীন ছুটি ২৯ ডিসেম্বর হতে ৯ জানুয়ারিঝালকাঠিতে জাপার প্রচার আছে মাঠে নেই প্রার্থী ও কর্মী

ওপেক ছাড়ার কারণ জানাল কাতার

আন্তর্জাতিক: বিশ্বের শীর্ষ তেল রফতানিকারক দেশগুলোর সংগঠন ওপেক থেকে কাতারের বেরিয়ে যাওয়ার পেছনে সংযুক্ত আরব আমিরাত রাজনৈতিক উদ্দেশ্য রয়েছে বলে দাবি করলেও দোহা বলছে ভিন্ন কথা। কাতারের জ্বালানিবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী সাদ আল-কাবি বলেছেন, রাজনৈতিক কারণে তার দেশ ওপেক থেকে বেরিয়ে যাচ্ছে না।

গত বুধবার ওপেকের ১৭৫তম বৈঠকে যোগ দিতে অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনা পৌঁছে তিনি এ মন্তব্য করেন। কাতারের এই মন্ত্রী বলেন, কাতার ওপেকে নিজের উপস্থিতির উপকারি ও ক্ষতিকর দিকগুলো বিবেচনা করে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। একটি গ্যাসসমৃদ্ধ দেশ এবং গ্যাস রফতানিতে মনযোগ কেন্দ্রীভূত করাই দোহার জন্য বেশি লাভজনক।

আগামী বছরের জানুয়ারিতে ওপেক থেকে বেরিয়ে দেশের গ্যাস উৎপাদন ও রফতানিতে মনযোগ দেয়া হবে বলে গত ৩ ডিসেম্বর ঘোষণা দেয় কাতার। দোহা ওপেকের তেল উৎপাদনকারী ক্ষুদে দেশ হলেও বিশ্বের সর্বোচ্চ তরল প্রাকৃতিক গ্যাসের (এলএনজি) রফতানিকারক।

কাতারের জ্বালানিবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বলেন, ওপেকের সদস্য থেকে কাতারের তেমন কোনো লাভ নেই অথচ গ্যাসখাতে তার দেশের সামনে সাফল্যের অনেক বড় দুয়ার খোলা রয়েছে। কাতার দৈনিক মাত্র ছয় লাখ ব্যারেল তেল উত্তোলন করে; যা বন্ধ হয়ে গেলেও ওপেকের কোনো ক্ষতি হবে না।

সাদ আল কাবি বলেছেন, আগামী জানুয়ারিতে ওপেক ছাড়বে কাতার। এরপর তারা ওপেকের সঙ্গে কোনো ধরনের চুক্তিতে পৌঁছাবে না। কাতারের জ্বালানীমন্ত্রী এই দাবি করলেও ভিয়েনায় ইরানের তেলমন্ত্রী বিজান জাঙ্গানে বলেছেন, কাতার কেন ওপেক থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিল তা খতিয়ে দেখতে হবে।

এদিকে, বিশ্বের শীর্ষ তেল রফতানিকারক দেশগুলোর এই সংগঠন থেকে কাতার বেরিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয়ার একদিন পর মঙ্গলবার সৌদি বাদশাহ উপসাগরীয় সহযোগিতা পরিষদের (জিসিসি) আসন্ন রিয়াদ সম্মেলনে কাতারের আমিরকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। তবে ওই সম্মেলনে কাতারের আমির যাবেন কি-না সেব্যাপারে এখন পর্যন্ত কোনো তথ্য জানায়নি দোহা।

সংবাদটি শেয়ার করুন..