আজ: ১৬ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইংরেজি
শিরোনাম

কোন নিয়মে হাঁটবেন?

স্বাস্থ্য: ডায়াবেটিস, থাইরয়েড, হার্টের নানা সমস্যা বা ওবেসিটির থাকলে তা সমাধানের অন্যতম একটি উপায় হাঁটা। বর্তমানে প্রযুক্তিনির্ভর জীবনে কায়িক শ্রম এমনেই অনেক কম করা হয়। শারীরিক পরিশ্রম কমে যাওয়ার কারণেই বিভিন্ন অসুখ হয় আমাদের শরীরে।প্রতিদিন আমাদের অন্তত আধ ঘণ্টা হাঁটতে হবে। এতে যে কেবলমাত্র পেশি বা স্নায়ুর উপকার হয় এমনই নয়, বরং হাড়ের জন্যও খুব উপকারি। হার্টের কার্যকারিতা বৃদ্ধি, শরীরের অতিরিক্ত চর্বি দূর, পেশিশক্তি বাড়ানো, রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ ইত্যাদি ক্ষেত্রে উপকার পাওয়া যায় হাঁটলে।

ডায়াটেশিয়ান ও পুষ্টিবিদদের মতে, যেকোনো সময়েই হাঁটা যায়। সকালেই হাঁটতে হবে বা বিকেলে এমন কোনো নির্দিষ্ট সময় নেই। তবে কোন সময়ে হাঁটা আপনার শরীরের জন্য উপকার তা জেনে নিন চিকিৎসকের কাছ থেকে।

ভরা পেটে যেমন ব্যায়াম করা যাবে না, তেমন খালি পেটেও তা করবেন না। বরং হালকা কিছু খেয়ে বা খাওয়ার আধ ঘণ্টা পর হাঁটুন। ভেঙে ভেঙে পাঁচ-দশ মিনিট করে হাঁটার চেয়ে একটানা আধ ঘণ্টা হাঁটুন। এতে অসুখের সঙ্গে লড়ার ক্ষমতা তৈরি হয়।

ছোট জায়গায় হাঁটার থেকে লম্বা রাস্তা ধরে হাঁটুন। এতেই বেশি উপকার পাবেন। জায়গা ছোট হলে শরীরে হাঁটার ছন্দ তৈরি হয় না। তার চেয়ে একটানা আধ ঘণ্টা হাঁটা যাবে এমন রাস্তায় হাঁটুন।

তবে একেবারেই বাইরে যেতে না পারলে অল্প জায়গায় হাঁটুন। হাঁটার সময় মোবাইল ব্যবহার বা গল্প করতে করতে হাঁটার অভ্যাস ছাড়ুন। এতে হাঁটার জোর কমে যায়। শারীরিক উপকার পেতে তাই এমন ভাবে হাঁটুন, যাতে ঘাম হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন