আজ: ২৬শে এপ্রিল, ২০১৯ ইংরেজি
শিরোনাম

মাদকের প্রতিবাদ করায় যুবলীগ নেতাকে হত্যার চেষ্টা

আব্দুল হাছিব, সিলেট ।

মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের সাধারন সম্পাদক ও পৌর যুবলীগের সদস্য জুয়েল আহমদকে সন্ত্রাসীরা রবিবার (১৪ এপ্রিল) রাত সাড়ে নয়টায় কুপিয়ে মারাত্বক আহত করে ফেলে যায় । এ হামলায় তার নাড়িভুড়ি বের হয়ে যায় । আহত জুয়েলকে প্রথমে উপজেলা সাস্থ্য কমপ্লেক্সে, পরে মৌলভীবাজার হাসপাতালে প্রেরন করা হলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হসপিটালে প্রেরন করেন।

ওসমানী হাসপাতাল সূত্র জানায়, রবিবার (১৪ এপ্রিল) রাত দুইটার সময় তার অপারেশন সম্পন্ন হয়। শারিরিক অবস্থা তেমন ভালো নয় প্রচুর রক্তের প্রয়োজন।

আহত জুয়েলের পরিবার ও আত্বীয় স্বজনদের অভিযোগ কুমড়া কাপন এলাকার ধলা মিয়ার পুত্র মুহিত, মহিবুর, আজিম, উজ্জল ও দেলোয়ার , পানিশালার আকল চৌকিদারের ছেলে সাজ্জাদুর রহমান সাজু এরা সম্মিলিতভাবে ধরে নিয়ে নিমর্মভাবে কুপিয়ে ফেলে যায় জুয়েলকে।

৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর গোলাম মুগনি মুহিত বলেন, যারা এঘটনার সাথে জরিত তাদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দেওযা হোক।

পৌর মেয়র জুয়েল আহমদ বলেন, আমরা চিকিৎসার বিষয়ে সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রাখছি সব ধরনের সহযোগীতা করছি । স্থানীয় থানায় অভিযোগ করা আছে ওসি আইনি ব্যবস্থা নিচ্ছেন। মাদকের বিষয়ে জানতে চাইলে পৌর মেয়র বলেন, পূর্বশত্রতা থেকে ও হামলা হতে পারে।

কমলগঞ্জ থানার ওসি আরিফুল হক জানান, এ খবর শুনে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়েছি । এই ঘটনার সাথে যারা জড়িত তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। মাদকের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বানুগাছ রেলষ্টেশন জিআরপি থানা পুলিশের অধীনে এবং ষ্টেশন মাষ্টারের ব্যাপারে ভালো বলতে পারেন। তবে মাদকের ব্যাপার নিয়ে একটা জামেলা ছিলো সেটা মুচলেকা দিয়ে শেষ হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া আসামী সাজুর মাদক সেবনের একটি ছবি নিয়ে জনমনে ঘুরপাক খাচ্ছে এ ছবি তুলা নিয়ে বিগত দিনে ঝামেলা হয়েছে । অনেকে বলেন মাদক নিয়ে যুবলীগ নেতা জুয়েল মিয়া সোচ্চার ছিলেন বিধায় তাকে প্রাণে মারার উদ্দেশ্যে মারাত্বক কুপিয়ে আহত করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 116
  •  
  •  

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার মতামত জানান

আপনার ই-মেইল আইডি গোপন রাখা হবে।