আজ: ১৫ই অক্টোবর, ২০১৯ ইংরেজি
শিরোনাম

২০১৯ এ জাতীয়করণ: গ্রামপুলিশ সদস্যদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব

বাংলা লাইভ ডেস্ক ।

চলতি বছরেই গ্রামপুলিশ বাহিনীর চাকুরি জাতীয়করণ হতে পারে। প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব-২ ওয়াহিদা আক্তার খুলনায় তার নিজ বাসভবনে গ্রামপুলিশ বাহিনীর সদস্যদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে এ কথা জানান।

গত ১৫ মার্চ বাংলাদেশ গ্রামপুলিশ বাহিনী কল্যাণ ফান্ডের সদস্যবৃন্দের সাথে প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচবি-২ ওয়াহিদা আক্তার খুলনায় তার নিজ বাসভবনে সৌজন্য সাক্ষাত করেন। এসময় তিনি গ্রামপুলিশ সদস্যদের এক প্রশ্নের জবাবে জানান, “চলতি ২০১৯ সালেই গ্রামপুলিশ বাহিনীর চাকুরী জাতীয়করণ করা হতে পারে। সরকার বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করছে।”

আরও পড়ুন: ভাগ্য উন্নয়নে আদালতের দরজায় গ্রামপুলিশ

গ্রামপুলিশ বাহিনীর প্রতি বর্তমান সরকার যথেষ্ট আন্তরিক রয়েছে মর্মে তিনি জানান, ইতিমধ্যে গ্রামপুলিশ বাহিনীর মানন্নয়নে সরকার বেশকিছু পদক্ষেপ বাস্তবায়ণ করেছে। কয়েক ধাপে গ্রামপুলিশ বাহিনীর বেতন ভাতা বৃদ্ধি একমাত্র বর্তমান সরকারের আন্তরিকতার কারণেই সম্ভব হয়েছে। খুব শিঘ্রই গ্রামপুলিশ বাহিনীর ভাগ্যের উন্নয়ন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

সরকারের সকল উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে সক্রিয় ভূমিকা ও সকল নির্দেশনা যথাযথভাবে পালন করার জন্য তিনি গ্রামপুলিশ বাহিনীকে আহ্বান জানান। গ্রাম পর্যায়ে আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় গ্রামপুলিশের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। ন্যায় ও নিষ্ঠার সাথে সকল দায়িত্ব পালন করার লক্ষ্যে গ্রামপুলিশ বাহিনীকে সর্বদা থাকতে তিনি পরামর্শ দেন।

সৌজন্য সাক্ষাতে বাংলাদেশ গ্রামপুলিশ বাহিনী কল্যাণ ফান্ডের সভাপতি মো: উজ্জল খান, সাধারণ সম্পাদক এসএম জিয়াউল হক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুক্তার হোসেন, সহকারি কোষাধ্যক্ষ আবদুল্লাহ শেখ ও খুলনা দিঘলিয়া উপজেলার সেনহাটী ইউনিয়নের দফাদার মো: বিল্লাল হোসেন সহ অন্যান্য গ্রামপুলিশ সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 890
  •  
  •  
  •  

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার মতামত জানান