আজ: ৯ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইংরেজি
শিরোনাম

মালয়েশিয়ায় সচিব পর্যায়ে বৈঠক, অবৈধদের আশার প্রহর

আহমেদ কবির টিপু,মালয়েশিয়া । বাংলালাইভটোয়েন্টিফোর.কম

জি টু জি প্লাস প্রক্রিয়ায় বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিয়োগ শুরু হলে একপর্যায়ে সিন্ডিকেট এবং অতিরিক্ত অভিবাসন ব্যয় বৃদ্ধির কারণে মাহাথির সরকার বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিয়োগ স্থগিত করে। সরকার ঘোষণা দেয় সমগ্র প্রক্রিয়াটি মূল্যায়ন করে একক এবং মানসম্মত প্রক্রিয়া নির্ধারণ করবে। সংকট উওরনে মালয়েশিয়ায় ২৯-৩০ মে দুই দেশের সচিব পর্যায়ে বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে।

অতিরিক্ত অভিবাসন খরচ, কর্মীদের বিভ্রান্ত করা, কাজ ও বেতন সম্পর্কে ভুল ধারণা দেয়া , মধ্য পর্যায়ে দালালি ইত্যাদি বিষয় বিবেচনা করে। এর মধ্যে অবৈধ অভিবাসীদের প্রসঙ্গ প্রাধান্য পায়। এসব মিলিয়ে আন্তর্জাতিক মানদন্ড অনুযায়ী মালয়েশিয়া মানব পাচার জনিত হুমকির মুখে রয়েছে। এ থেকে উত্তরণের জন্য সরকার লেবার সোর্স কান্ট্রির সহযোগিতা চেয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বিগত দুটি জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের সভায় অবৈধ কর্মীদের বিষয় প্রাধান্য পেয়েছে।
এছাড়া অবৈধ কর্মীরাও আশায় রয়েছে কোন এক সুন্দর প্রত্যাশায়। আসন্ন ২৯ ও ৩০ মের বৈঠকে অবৈধদের সহজে নিজ দেশে ফিরে যাওয়া বা বৈধ হবার সুযোগ পাবে। এদিকে মালয়েশিয়ার মানব সম্পদ মন্ত্রী কুলেসগারান বলেছেন, সহজ শর্তে কোম্পানি কর্মী প্রতিস্থাপনের সুযোগ পাবে। সংশ্লিষ্টরা আশা করছে এ সুযোগ দিলে অনেক অবৈধ কর্মী বৈধ হতে পারবে।

সম্প্রতি মালয়েশিয়ার ইমিগ্রেশন প্রধানের হুশিয়ারি অবৈধ প্রবাসীদের আতংক বিরাজ করছে। তিনি বলেছেন ঈদের পর ব্যাপক তল্লাশি অভিযান করে বিদেশি কর্মীদের ভিসা চেক করবেন। এতে যাদের ভিসা নেই তারা গ্রেফতার হবেন এবং শাস্তির আওতায় আসবেন।

এমন প্রক্রিয়ার কারণে অনেকে স্বেচ্ছায় সারেন্ডার করে দেশে ফিরে যেতে আগ্রহী হচ্ছে । সরকারের উচিত সহজে দেশ ত্যাগের ব্যবস্থা করা। এধরনের অভিযান চালানোর আগে প্রবাসী কর্মীদের মাধ্যেমে মালয়েশিয়ার উন্নয়নে অবদান রাখার বিষয়টি বিবেচনার অনুরোধ জানান দেশটিতে বসবাসরত প্রবাসীরা। সকলের আশা জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রপের উপযুক্ত সিদ্ধান্ত হবে। আশায় রয়েছেন সকল প্রবাসী এবং দেশে থাকা পরিবার।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 43
  •  
  •  
  •  

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার মতামত জানান