আজ: ২০শে অক্টোবর, ২০১৯ ইংরেজি
শিরোনাম

টানা ৯ দিনের ছুটি নিয়ে আলোচনা হয়নি

বাংলালাইভ ডেস্ক ।

পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরে একদিন ছুটি মিললেই টানা ৯ দিন ছুটি কাটাতে পারবেন সরকারি কর্মজীবীরা। তবে সেই ছুটির বিষয়টি নির্ভর করছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাহী আদেশের ওপর। কারণ তার এখতিয়ারেই ছুটি ঘোষণা হতে পারে ৩ জুন।

যদিও প্রধানমন্ত্রী দীর্ঘ সফরে দেশের বাইরে যাচ্ছেন ২৮ মে, আর ফিরবেন ৮ জুন। তবে দেশের বাইরে থাকলেও ই-নথির মাধ্যমেও মিলতে পারে ছুটির আদেশ।

২০১৯ সালের বর্ষপঞ্জি অনুযায়ী, রমজান মাস ২৯ দিন ধরে নিয়ে ৪ থেকে ৬ জুন ঈদুল ফিতরের ছুটি নির্ধারণ করা আছে।

রোজা ৩০টি হলে ঈদ হবে ৬ জুন, সেক্ষেত্রে ৭ জুনও ঈদের ছুটি থাকবে। ৫ জুন ঈদ হলে তিন দিনের ঈদের ছুটির সঙ্গে দুদিনের সাপ্তাহিক ছুটি মিলিয়ে ৪ থেকে ৮ জুন টানা পাঁচদিন ছুটি পাওয়া যাবে।

৪ জুন ঈদের ছুটি শুরুর আগে ২ জুন থাকবে শবেকদরের ছুটি। এর পর ৩ জুন শুধু অফিস খোলা।

প্রধানমন্ত্রী নির্বাহী আদেশে এই একদিন ঘোষণা করা হলে টানা ৯ দিনের ছুটি মিলে যাবে সরকারি চাকরিজীবীদের।

প্রধানমন্ত্রী দেশের বাইরে যাওয়ার আগে আজ সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে ছুটি নিয়ে আলোচনা হয়েছে কিনা- তা নিয়ে প্রশ্ন অনেকেরই। মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলমের কাছেও জানতে চেয়েছেন সাংবাদিকেরা।

ছুটি নিয়ে কোনো আলোচনা হয়েছে কিনা- জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এটা আলোচনা হয়নি। আমার মনে হয় সামারির মাধ্যমে নিষ্পত্তি হবে, যদি হয় (ছুটি) আরকি।

ছুটির সম্ভাবনা আছে কিনা- প্রশ্নে তিনি বলেন, এখনো কোনও আলোচনা শুনিনি। মাঝখানে একটি দিন পড়ে যায়, ৩ তারিখ।

প্রধানমন্ত্রী নির্বাহী আদেশে একদিন ছুটি ঘোষণা করতে পারেন বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

প্রধানমন্ত্রী বিদেশে থাকবেন, এই সময়ে ছুটির ফাইল সই হবে কিনা- জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রী এখন বিদেশে থাকলেও কাজ করেন। এখন তো ইন্টারনেটের যুগ। ফাইল মেইলে চলে যায়, মেইলে চলে আসে। কোনো সমস্যা হয় না। ই-নথি (ইলেকট্রনিক নথি) করি আমরা।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 29
  •  
  •  
  •  

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার মতামত জানান