আজ: ২০শে জুন, ২০১৯ ইংরেজি
শিরোনাম

২৩ বছর সাজা ভোগ, মুক্তি পাওয়া মর্জিনাকে সেলাই মেশিন প্রদান

এম.পলাশ শরীফ, বাগেরহাট।

বাগেরহাটে একটি হত্যা মামলায় দির্ঘ ২৩ বছর কারা ভোগের পরে মুক্তি পাওয়া মর্জিনা বেগম (৫২) নামের সেই নারী বন্দিকে সেলাই মেশিন প্রদান করেছে বাগেরহাট জেলা কারাগার কর্তৃপক্ষ।

মঙ্গলবার দুপুরে জেলা কারাগার গেটে ওই নারীর হাতে সেলাই মেশিন তুলে দেন জেল সুপার মোঃ গোলাম দস্তগীর। এসময় জেলার এসএম মহিউদ্দিন হায়দার, সমাজসেবা অধিদপ্তরের প্রবেশন অফিসার এসএম নাজমুস সাকিবসহ জেলা কারাগারের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মর্জিনা বেগম মোরেলগঞ্জ উপজেলার গুয়াবাড়িয়া গ্রামের সাহেব আলী শেখের স্ত্রী। জেলা কারাগার সূত্রে জানা যায়, ১৯৯৬ সালের ২০ জুলাই স্বামীর বাড়িতে নিজ স্বতীনকে হত্যা করে দুই কন্যা সন্তানের জননী মর্জিনা বেগম।

ওইদিনই পুলিশ মর্জিনাকে গ্রেফতার করে। পরে ২১ জুলাই আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয় তাকে। পরে মামলার স্বক্ষি-প্রমান শেষে আদালত মর্জিনাকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডাদেশ দেন।

যশোর কারাগারে ১০ বছর এবং বাগেরহাট কারাগারে অবশিষ্ট সময় কাটান মর্জিনা। মর্জিনার ভাল আচরণের জন্য সাত বছর সাজা কমিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে মর্জিনাকে মুক্তি দেয় কারাগার কর্তৃপক্ষ।

মর্জিনা বেগম বাংলালাইভকে বলেন, জীবনের বেশিরভাগ সময় কারাগারে কাটিয়েছি। এখানে স্যারদে কথামত চলেছি। আজ মুক্ত হয়ে চলে যাচ্ছি। আমি যে সেলাই মেশিনটা পেয়েছি সেটা দিয়ে বাড়ির সামনে একটি দোকান দেওয়ার চেষ্টা করবো।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 123
  •  
  •  
  •  

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার মতামত জানান

আপনার ই-মেইল আইডি গোপন রাখা হবে।