আজ: ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইংরেজি
শিরোনাম

ব্যালেন্স করে কাজ করেন নাদিয়া

বিনোদন ডেস্ক ।

এ প্রজন্মের প্রিয় অভিনেত্রী সালহা খানম নাদিয়া। সারা বছর ধারাবাহিক নাটকেই ব্যস্ত থাকেন। তাই এবার ঈদে খুব বেশি খ- নাটকে কাজ করতে পারেননি। সব মিলিয়ে ১০টি নাটক প্রচার হয়েছে তার। এ নিয়ে নাদিয়া বলেন, ‘এত কম কাজ প্রচার হবে ভাবিনি। অনেক কষ্ট করে ধারাবাহিক নাটকের ফাঁকে খ- নাটকের শ্যুটিং করেছি। প্রায় দেড় ডজন নাটকের কাজ করেছিলাম। কিন্তু প্রচার হয়েছে ১০টি নাটক।’

তার অভিনীত নাটকের সংখ্যাই যে কম ছিল তা নয়। আরেকটি কারণেও নাদিয়ার একটু মন খারাপ। তিনি বলেন, ‘আমি সব সময় বলি- দর্শক আমাকে যেভাবে দেখতে চায় আমি সেভাবেই কাজ করব।

এতদিনের কাজের অভিজ্ঞতা থেকে জেনেছি দর্শক আমাকে রোমান্টিক আর কমেডি নাটকে বেশি দেখতে পছন্দ করে। তাই এ ঈদে হিসাব করে অর্ধেক রোমান্টিক আর অর্ধেক কমেডি নাটক করেছি। কিন্তু প্রচারের দেখা গেল- আমার সবগুলো কমেডি নাটক প্রচার হয়েছে। সেই তুলনায় রোমান্টিক নাটক কম। ফলে ভক্তরা ফেইসবুকে জানতে চাচ্ছে কেন আমি রোমান্টিক নাটক করিনি।’

তবে যে নাটকগুলো প্রচার হয়েছে তার সাড়া বেশ ভালোই পেয়েছেন বলে জানালেন নাদিয়া। তার অভিনীত নাটকগুলো ছিল মোশাররফ করিমের বিপরীতে ১০ পর্বের ধারাবাহিক নাটক ‘ভালোবাসার সর্দি কাশি’, জাহিদ হাসানের বিপরীতে খ- নাটক ‘অভিমানি কাজল’, তৌসিফ মাহবুবের বিপরীতে ‘ফান্দে পড়িয়া বগা কান্দে রে’, মনোজের বিপরীতে ‘বার্ষিক পরীক্ষা’ ও ‘নন্দিনী এবং বিষণœ বালক’, শামীম সরকারের বিপরীতে ‘এক ব্যাগ ভালোবাসা’, জনির বিপরীতে ‘মেঘ বৃষ্টির আকাশ’ ইত্যাদি।

এরমধ্যে ধারাবাহিকটির জন্য সবচেয়ে বেশি সাড়া পেয়েছেন তিনি। কমেডি ধাঁচের নাটকটি নির্মাণ করেছেন রুলিন রহমান। আরেকটি কমেডি খ- নাটক ইমরাউল রাফাতের ‘ফান্দে পড়িয়া বগা কান্দে রে’র ইউটিউব ভিউ হয়েছে বেশ। তবে নাদিয়ার ব্যক্তিগত পছন্দ ‘নন্দিনী এবং বিষণ বালক’ নাটকটি। তিনি চান ভক্তরা যেন শুধু বিনোদনের জন্য নয়, কিছু শেখার জন্য হলেও ভালো নাটকগুলো দেখেন।

এদিকে নাদিয়া এখন ব্যস্ত আরটিভিতে প্রচার হওয়া ধারাবাহিক নাটক ‘চিটিং মাস্টার’-এর শ্যুটিং নিয়ে। এতে তার নায়ক নিলয় আলমগীর। এ নাটকটি ইতিমধ্যে ১২১ পর্ব প্রচার হয়েছে। চলবে ২০০ পর্ব পর্যন্ত।

এটি এখন আরটিভির ধারাবাহিকগুলোর মধ্যে টিআরপিতে এক নম্বর অবস্থানে আছে। নাদিয়ার চরিত্রটিও বেশ মজার। শোনা যাক তার নিজের মুখেই, ‘এখানে আমি পুরান ঢাকার মেয়ে। আমার একমাত্র ইচ্ছা একটা সুদর্শন পুরুষের সঙ্গে প্রেম করা। অবশেষে নিলয়কে পাই। নাটকটি করে বেশ মজা পাচ্ছি। কারণ আমি অনেকদিন ধরেই পুরান ঢাকাতেই থাকি। তাই এখানকার মেয়েদের খুব কাছ থেকে দেখার সুযোগ হয়েছে। সেই অভিজ্ঞতাই কাজে লাগাচ্ছি। এজন্য দর্শক আমার চরিত্রটি পছন্দ করছে।’

এছাড়া জনপ্রিয় গায়ক আসিফ আকবরের ‘তুমিময়’ গানের ভিডিওতে মডেল হয়েছেন নাদিয়া। এটি ঈদে ইউটিউবে প্রকাশের পর দারুণ সাড়া পেয়েছেন তিনি। নাদিয়ার হাতে রয়েছে আরটিভির জন্য নির্মিত আকাশ রঞ্জন পরিচালিত নতুন ধারাবাহিক ‘আক্কেলগঞ্জ হোম সার্ভিস’ ও ‘শহর আলী’ নামের দুটি ধারাবাহিক।

দুটি নাটকের তার সহশিল্পী মোশাররফ করিম ও চঞ্চল চৌধুরী। এ নাটক দুটিতে নাদিয়া দুটি ভিন্ন চরিত্রে হাজির হবেন। প্রথমটি গ্রামের নাটক। আর দ্বিতীয়টির প্রেক্ষাপট শহর। বড়লোকের মেয়ে নাদিয়া প্রচ- দেমাগী। তার বডিগার্ড থাকেন শহর আলী নামের চঞ্চল চৌধুরী। এক সময় গল্প মোড় নেয় ভিন্ন দিকে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 120
  •  
  •  
  •  

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার মতামত জানান