আজ: ২১শে নভেম্বর, ২০১৯ ইংরেজি
শিরোনাম

রাণীশংকৈলে ‘জেলা ইজতেমার’ সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন-নিরাপত্তা জোরদার

সফিকুল ইসলাম শিল্পী, রাণীশংকৈল ।

ঠাকুরগাঁও জেলার রাণীশংকৈল উপজেলার পাইলট স্কুল মাঠে ৩দিন ব্যাপি তাবলীগ জামাতের জেলা ইজতেমার সকল প্রকার প্রস্তুতি ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। আগামি ২২ থেকে ২৪ আগস্ট আখেরি মুনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। ২১ আগস্ট বুধবার দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মুসল্লিরা দলবেঁধে বিভিন্ন উপজেলা থেকে জামাত বেঁধে আসতে শুরু করেছে।

জানা গেছে, সাদ সমর্থক পন্থি ইজতেমা কমিটির আয়োজনে এ ইজতেমা ৩দিন ব্যাপী চলবে। ইজতেমার কমিটি জিম্মাদার ইউনুস আলী বলেন, ‘আমরা ২৫ থেকে ৩০ হাজার মুসল্লির থাকা খাওয়া ও পয়নিস্কাশনের ব্যবস্থা করেছি’। অপরদিকে ইজতেমাকে কেন্দ্র করে সুসম্পন্ন ভাবে পালনের জন্য বিকেলে ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার মুনিরুজ্জামান মুনির রাণীশংকৈল থানায় নিরাপত্তায় নিয়োজিত সকল পুলিশের সাথে সু-সৃক্সখল ভাবে ইজতেমায় আইন শৃক্সখলা পরিচালনার জন্য কড়া নিদের্শ প্রদান করেন।

পরে উপজেলার সকল সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় মিলিত হন এবং ইজতেমা সু-সৃক্সখলভাবে সম্পন্ন হওয়ার জন্য সাংবাদিকদের কাছে সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঠাকুরগাঁও জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মুনিরুজ্জামান মুনির, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) আল আসাদ মুহা. মাহফুজুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সদর সার্কেল আবু তাহের মুহা. আব্দুল্লাহ, অতিরিক্ত পুলিশ সুুপার ইনসার্ভিস চাইলাউ মারমা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইনসার্ভিস সামিউল আলম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর মাসফেকুর রহমান, সহকারি পুলিশ সার্কেল মোস্তাফিজুর রহমান, রাণীশংকৈল থানা অফিসার ইনচার্জ আব্দুল মান্নান ও থানা ওসি তদন্ত খায়রুল আনাম ডন প্রমুখ।

প্রসঙ্গত: সাদ পন্থিদের বিপক্ষে জুবায়ের পন্থিরা গত ২০ আগস্ট মঙ্গলবার সকালে ইজতেমা ঠেকাতে রাণীশংকৈলে মানববন্ধন করে এবং তাবলীগ জামাতের ইজতেমা ঠেকাতে মাথার পাগরী কমড়ে বেঁধে কঠোর হুশিয়ারি দেয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার মতামত জানান